ভুল করেও এই দিকে দেয়াল ঘড়ি লাগাবেন না, এতে সমস্যা হতে পারে।

vastu-tips-for-wall-clock
শেয়ার করুন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে :

ঘড়ির ক্ষেত্রে প্রত্যেকের জন্য বেছে নেওয়ার জন্য পর্যাপ্ত বিকল্প রয়েছে। কিন্তু আপনি যে ঘড়িটি বেছে নিন না কেন, ঘড়ির ক্ষেত্রে প্রযোজ্য বাস্তুশাস্ত্রের নিয়ম একই থাকে।

মোবাইল ফোন হওয়া সত্ত্বেও, বাড়ির দেয়াল ঘড়ি তার আকর্ষণ এবং মান ধরে রেখেছে। সময়ের ট্র্যাক রাখার সহজতা এবং এটি সাজসজ্জাতে যে সৌন্দর্য যোগ করে তা অপরিবর্তনীয়। ঘড়ির ক্ষেত্রে প্রত্যেকের জন্য বেছে নেওয়ার জন্য পর্যাপ্ত বিকল্প রয়েছে। কিন্তু আপনি যে ঘড়িটি বেছে নিন না কেন, ঘড়ির ক্ষেত্রে প্রযোজ্য বাস্তুশাস্ত্রের নিয়ম একই থাকে। এই দেওয়াল ঘড়ির বাস্তু নিয়মগুলি নেতিবাচক শক্তি কমাতে এবং বাড়িতে ইতিবাচকতা বাড়াতে দেওয়াল ঘড়িগুলির সঠিক দিক নির্ধারণ করে। দেয়াল ঘড়ি ইনস্টল করার জন্য এখানে কিছু বাস্তু টিপস রয়েছে। 

আদর্শ দিক

একটি প্রাচীর ঘড়ি ইনস্টল করার আদর্শ দিক হল উত্তর বা পূর্ব প্রাচীর। এই দিকগুলিকে শুভ বলে মনে করা হয় এবং বিশ্বাস করা হয় যে এটি ইতিবাচক শক্তি আকর্ষণ করে।

দক্ষিণ ও পশ্চিম দিক এড়িয়ে চলুন

সাধারণত দক্ষিণ ও পশ্চিম দেয়ালে দেয়াল ঘড়ি স্থাপন করা এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেওয়া হয়। এই নির্দেশগুলি সময়ের ক্ষতি করে বলে মনে করা হয় এবং বাড়ির ইতিবাচক শক্তির প্রবাহকে ব্যাহত করতে পারে।

ঘড়ির উচ্চতা

দেয়াল ঘড়িটি উপযুক্ত উচ্চতায় ঝুলানো উচিত। আদর্শভাবে, আপনি যখন বসার অবস্থানে থাকেন তখন এটি চোখের স্তরে হওয়া উচিত। ঘড়িটি খুব উঁচু বা খুব কম রাখা এড়িয়ে চলুন।

ঘড়ির কাঁটার গতি

ঘড়ির কাঁটা ঘড়ির কাঁটার দিকে ঘোরানো উচিত। এটা বিশ্বাস করা হয় যে এটি অগ্রগতি এবং জীবনে এগিয়ে যাওয়ার প্রতীক। ঘড়ির কাঁটার বিপরীত দিকে বা অনিয়মিতভাবে টিক টিক করে এমন ঘড়ি ব্যবহার করা এড়িয়ে চলুন।

কোনো ভাঙা বা বন্ধ ঘড়ি স্থাপন করবেন না। 

আপনার বাড়িতে ভাঙা বা বন্ধ ঘড়ি রাখা এড়িয়ে চলুন। এগুলি অশুভ বলে মনে করা হয় এবং নেতিবাচক শক্তি আনতে পারে।

বেডরুমের ঘড়ির সঠিক দিকটি বেছে নিন 

বেডরুমে দেয়াল ঘড়ি রাখার পরামর্শ দেওয়া হয় না, বিশেষ করে বিছানার দিকে। আপনার শোবার ঘরে ঘড়ি থাকলে এমন জায়গায় রাখুন যেখানে বিছানা থেকে সরাসরি দেখা যায় না।

পরিষ্কার ও পরিপাটি

আপনার দেয়াল ঘড়ি পরিষ্কার এবং পরিপাটি রাখুন. ঘড়ির ধুলো এবং ময়লা ইতিবাচক শক্তির প্রবাহকে বাধাগ্রস্ত করতে পারে।

ইতিবাচক রং ব্যবহার করুন

প্রশান্তিদায়ক এবং ইতিবাচক রঙ সহ একটি দেয়াল ঘড়ি চয়ন করুন। গাঢ় বা নিস্তেজ রং এড়িয়ে চলুন, কারণ তারা ঘরের সামগ্রিক শক্তির ক্ষতি করতে পারে।


শেয়ার করুন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে :

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top